ক্রিকেট খেলার ইতিহাস ও এর গুরুত্বপূর্ণ অজানা তথ্য

 

ক্রিকেট এর ইতিহাস, অজানা তথ্য

ক্রিকেট খেলার ইতিহাস

ক্রিকেট যার অর্থ ঝিঁঝিঁ পোকা। বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয়তার বিচারে ফুটবলের পরে রয়েছে ক্রিকেটের স্থান। তবে ফুটবলের মত সব দেশে ক্রিকেটের প্রচলন না থাকলেও বর্তমান সময়ে অনেক ফুটবল খেলার দেশ ক্রিকেটের দিকে ঝুঁকছে। টেস্ট-ওয়ানডে কিংবা t20 সব ধরনের ক্রিকেটের নাড়ি ভূড়ি আমাদের কমবেশি সবারই জানা থাকলেও আমাদের অনেকেরই জানা নেই ব্যাট-বলের এই খেলাটি কিভাবে শুরু হয়েছিল। চলুন জেনে নেই ক্রিকেট খেলার ইতিহাস অজানা তথ্য-

শুরুর দিকের কথা, ফুটবলের মত ক্রিকেটের জন্ম কোথায়? তা নিয়ে রয়েছে বিভিন্ন মত। তবে বেশিরভাগ মতোই বলছে ক্রিকেটের জন্ম ইংল্যান্ডে। কিন্তু বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত থেকে জানা যায়, ক্রিকেটের প্রচলন শুরু হয় ভারতীয় উপমহাদেশের পাঞ্জাব অঞ্চল তোয়াব এলাকায়। সপ্তম শতাব্দীতে এলাকায় ব্যাট এবং বল নামে এক ধরনের খেলা হতো তাদের মাধ্যমে অষ্টম শতাব্দীর আরো কিছু পড়ার সময়ে খেলাটি পারস্যের দিকে পরিচালিত হতে থাকে। ইউরোপে খেলাটি প্রচলন সম্পর্কে জানা যায়। দশম শতাব্দীর আগে প্রাচীন ভারতীয় মরুভূমিতে বসবাসকারী নরমেটিভ জিপসিরা তুরস্ক হয়ে যায় এবং সেখানে তারা তাদের মধ্যে প্রচলিত এই খেলাটি খেলতে থাকে। তাদের দেখাদেখি ইউরোপীয়দের মধ্যে খেলাটির প্রচলন হয়। বল নিয়ে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন ধরনের খেলা প্রচলিত ছিল। তবে ব্যাটের উদ্ভব হয় দক্ষিণ ভারতে সেখানে ব্যান্ডকে ডান্ডা বলা হতো। সংস্করন 1066 খ্রিস্টাব্দে ইংল্যান্ড বিজয়ের পর নরম্যানরা  চিত্তবিনোদনের জন্য ব্যাট-বলের খেলার ধারণাটি গ্রহণ করে তাদের হাত ধরেই গোড়াপত্তন হয় ক্রিক বা ক্রিকে নামক খেলার। সে সময় শুধুমাত্র সপ্তাহের রবিবার এই খেলাটি খেলা হত।খেলার ধরন ছিল এরকম, একটি বল একজন ব্যাটসম্যান এর দিকে ছুড়ে  মারা হতো। ব্যাটসম্যানের ঠিক পেছনেই আজকের মত এক ধরনের কাঠামো থাকতো। ব্যাটসম্যান সেই কাঠামোকে বলের  আঘাত থেকে বাঁচানোর জন্য তার হাতে থাকা কাঠের তক্তা দিয়ে বলটিকে বারি মারত।বল টি কে ধরার জন্য তার চারপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে কয়েক জন ফিল্ডার থাকতো। 1183 খ্রিস্টাব্দের জোসেব অব একজেটার নামক এক লেখক এর লেখা থেকে এরকমটি জানা যায়।

ক্রিকেট এর ইতিহাস অন্ধকার যুগ-
1400 খ্রিস্টাব্দে শুরু হয়ে যায় রাজ্য জয়ের প্রতিযোগিতা। পনেরশো খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত চলে প্রতিযোগিতা। এসময় ক্রিকেটের উপর নেমে আসে নিষেধাজ্ঞা। কেননা টিকেট খেলার কারণে যুদ্ধ করার মতো প্রয়োজনীয় সৈনিক পাওয়া যাচ্ছিল না। তাই রাজা দ্বিতীয় রিচার্ড ইংল্যান্ড ক্রিকেট খেলা নিষিদ্ধ করেন। সে সময়টাতে যদি কেউ এ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ক্রিকেট খেলত তাহলে তাকে শাস্তি দেওয়া হয়। আবার ক্রিকেটের এগিয়ে যাওয়া পনেরশো খ্রিস্টাব্দের পর ইউরোপে রাজ্য জয়ের প্রতিযোগিতা প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। সেই শতকের শেষের দিকে ইতালির রেনেসাঁ প্রভাবে ইউরোপের শিল্প সংস্কৃতির খোলস পাল্টে যেতে শুরু করে। চার চিটেফুটা খেলাধুলার গায়ে লাগে। 1500 খিষ্টাব্দে আগে যেই খেলাটির নাম ছিল ক্রিক বা ক্রিকে। সেটি 1600 খৃস্টাব্দ এসে পরিচিত লাভ করে ক্রিকেট নামে। আস্তে আস্তে ক্রিকেট খেলার কারণে যে শাস্তির বিধান করা হয়েছিল সেটি উঠে গেছে বলে ধারণা করলেও এক ধরনের অলিখিত নিষেধাজ্ঞা কে সাথে নিয়ে আস্তে আস্তে জনপ্রিয় হয়ে উঠতে থাকে ক্রিকেট। বিশেষত ধর্মযাজকরা এই খেলাটির ঘোর আপত্তি করতে থাকে। তাদের মধ্যে টিকেট হলো অলস অকর্মণ্য আর জুয়ারিদের খেলা। ধর্মযাজকরা এর বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা করেছিল। কিন্তু কোনো বাধাই বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি এর চলার পথে।
আধুনিক ক্রিকেটের পথ চলা-
কাউন্টু ম্যাচের মাধ্যমে আধুনিক ক্রিকেটের প্রচলন শুরু হয়। 1719 সালে ইংল্যান্ড জাতীয় দলে ও ক্যান দলের মধ্যকার ম্যাচটি মাধ্যমে। 1721 সালে ভারতবর্ষে আধুনিক ক্রিকেটের প্রচলন হয়। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির মাধ্যমে। তবে 1744 সালের আগে ক্রিকেটের পুরোপুরি আধুনিক হয়ে উঠে নি। কেননা সে সময়ে নিয়মকানুন মেনে ক্রিকেট খেলা হত না। 1744 সালে আধুনিক ক্রিকেটের বিভিন্ন নিয়ম কানুন করা হয় এবং সে নিয়ম মোতাবেক ক্রিকেট খেলা শুরু হয়।
টেস্ট ক্রিকেটের জন্ম -
1877 সালে এসে টেস্ট ক্রিকেটের জন্ম হয়। ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম টেস্ট ম্যাচে অংশগ্রহণ করে ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া। 1777 সালে 15 ই মার্চ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে অংশগ্রহণ করে এই দুটি দল। দুই ম্যাচেই অস্ট্রেলিয়ার জয় লাভ করে। বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা হিসেবে ইম্পিরিয়াল ক্রিকেট কনফারেন্স প্রতিষ্ঠিত হয় হাজার 1979 সালে। পরে হাজার 1956 সালে ইম্পেরিয়াল কথাটি পরিবর্তন করে ইন্টারন্যাশনাল শব্দটি যোগ করে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল রাখা হয়। সংক্ষেপে আইসিসি। 1882  ও 1883 সাল থেকে এর শুরু মর্যাদা এসেছিল এরপর থেকে অন্যান্য দেশ টেস্ট ক্রিকেটে একে একে পদার্পণ করে।
দক্ষিণ আফ্রিকা-  1880 থেকে 1889 সাল
ওয়েস্ট ইন্ডিজ- 1928 সাল
ইংল্যান্ড- 1929 থেকে 1930 সাল
ভারত- 1932 সাল
পাকিস্তান- 1952 থেকে 1953 সাল
শ্রীলংকার- 1981 থেকে 1982 সাল
জিম্বাবুয়ে- 1992 এবং
বাংলাদেশ- 13 ই নভেম্বর 2000 সাল
ওয়ান ডে ক্রিকেটের জন্ম-
শুরুর দিকে টেস্ট ম্যাচগুলো অনেকদিন ধরে চলতো। কেননা এখনকার মতো নির্দিষ্ট কোন দিনের হিসাব ছিল না। তখন ম্যাচ দেখার জন্য প্রচুর দর্শক হতো। এই সময়ে টিকিট কেটে খেলা দেখার প্রচলন শুরু হয়। কিন্তু বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে অনির্দিষ্ট দিন ধরে চলতে থাকা এই ক্রিকেট খেলা প্রায় বন্ধ থাকতো। এই নিয়ে আয়োজন এবং দর্শকদের মধ্যে লাগতো গন্ডগোল। একই সঙ্গে কমতে থাকে ক্রিকেটের দর্শক। ক্রিকেট মাঠের দর্শক ফিরিয়ে আনা এবং আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে রাকনেল হারওয়ের উদ্যোগে রগম্যান্সকো 40 ওভারে একটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করে। খেলা  হতো রোববারে। তাতে খেলতে কাউন্টি দল গুলোর বিপক্ষে চলতি এবং প্রাক্তন তারকা খেলোয়াড়দের সম্মেলনে গড়া ইন্টারন্যাশনাল কার ভিলিয়ার্স। এই মেসেজগুলো লাইভ প্রোগ্রাম দেখাতো বিবিসি ২নম্বর চ্যানেল। ফলাফল অভূতপূর্ব সাফল্য। যেসব দর্শক 3 দিন এর ফলাফল অসমাপ্ত ম্যাচ না দেখার জন্য মাঠ ত্যাগ করেছিলেন তারাই সকাল-বিকালে জয়-পরাজয়ের প্রত্যক্ষ করার জন্য নাড়ির টানে মাঠে আসতে শুরু করে। পরবর্তীতে 1963 সালে জিলেটকাব নামে ৬০ অভারের এক টুর্নামেন্টের আয়োজন করে ইংল্যান্ড।এই টুর্নামেন্ট 1981 সালে ন্যাটওয়েস্ট টপি নামে পরিচিতি লাভ করে। ইংল্যান্ডের দেখাদেখি টেস্ট খেলুড়ে অন্যান্য দেশগুলোতেও সীমিত ওভারের খেলার প্রচলন শুরু হয়। 1971 সালের শুরুর দিকে ইংল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ দিয়ে একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচের শুরু হয়। প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে অস্টেলিয়া জয়ী হয়।
ক্রিকেট আইন -
আনুষ্ঠানিকভাবে প্রথম ক্রিকেটে আইন লেখা হয় 1788 সালে এবং ওই সময়ের মধ্যে মিডেল স্টাম এবং এলবিডাব্লিউর শব্দগুলো চালু হয়। প্রথম ক্রিকেট দল মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব। 1793 সালে তারা লর্ডসের মাঠে প্রথম খেলতে নামে। ক্রিকেটের প্রথম ম্যাচ হিসেবে লর্ডসের ম্যাচটি প্রথম নথিভূক্ত হয়।
ক্রিকেট ব্যাট-
1853 সালে প্রথম ক্রিকেট ব্যাট তৈরি হয় মূল অংশ উইলিকার্ড আর রাবারের মোরা বোতল দিয়ে ক্রিকেট ব্যাট তৈরি করা হয়। ব্যাট তৈরীর প্রক্রিয়া হিসেবে প্রথমে ব্যাটটিকে হকিস্টিক এর মত বাঁকা করে আবার সোজা করা হয়। যাতে বল নিক্ষিপ্ত হলে দ্রুত চিটকে যায়। এরপর থেকেই আজকের আধুনিক ক্রিকেটে রূপ লাভ করে। বন্ধুরা কেমন লাগলো আমাদের পোস্টটি কমেন্টে অবশ্যই জানাবেন এবং ক্রিকেট সম্বন্ধে নতুন নতুন পোস্ট পেতে clickoffice.club এর সাথেই থাকুন।
ধন্যবাদ

*

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন