গুগল সম্পর্কে অজানা তথ্য। Unknown information about Google.

 

গুগলের সম্পর্কে অজানা তথ্য

গুগল সম্পর্কে অজানা তথ্য

বর্তমান সময়ে গুগল সম্পর্কে কে না জানে। দুনিয়া জুড়ে প্রতিদিন কোটি কোটি মানুষ ব্যবহার করছে এই গুগল এবং অনেকের কাছেই এটি তাদের ইন্টারনেট কার্যক্রম এর গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।তবে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন এখন আর শুধু একটি সার্চ ইঞ্জিন নয় এটি একটি বিশাল প্রযুক্তি কোম্পানি। ইউটিউব, এন্ডোয়েড,জিমেইল এর মতো অনেক বড় বড় প্ল্যাটফর্ম গুগলের দখলেই। যাই হোক আজকে আমরা গুগল সম্পর্কে এমন কিছু অজানা তথ্য জানবো। যা হয়ত আপনি আগে জানতেন না। গুগলের প্রথম নাম ছিল ব্যাকরাব। গুগলের প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ এবং সার্গেই ব্রিন। এ প্রতিষ্ঠানের প্রথম নাম দিয়েছিলেন ব্যাকরাব সেই 1996 সালেই। তখন তারা ওয়েব ক্রোলার নিয়ে কাজ করছিলেন। ওয়েব ক্রোলার হচ্ছে, যে পদ্ধতিতে একটি ওয়েবসাইট আর একটি ওয়েবসাইটকে খুঁজে বের করে এবং সেগুলোর অতীত লিংকের উপর ভিত্তি করে ওয়েব পেইজ রেংক করে। তাদের সেই ব্যাকরাব স্ট্যামফোর্ড সার্ভারে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে অ্যাক্টিভ ছিল।
গুগল সবসময় বলে তারা সবুজকে সমর্থন করে। আর এরই একটি বহিঃপ্রকাশ হল ছাগলের মাধ্যমে লনের ঘাস কাটা। ক্যালিফোর্নিয়ায় গুগোল সদরদপ্তরের লনের ঘাসগুলো নিয়মিতভাবে কেটেছেঁটে ঠিকঠাক রাখা এবং আগাছা দূর করার জন্য ক্যালিফর্নিয়া গ্রেজিং নামক একটি কোম্পানি থেকে তারা ছাগল ভাড়া করে। তাই আপনি যদি কখনো গুগলের সদরদপ্তরে জান।তাহলে ছাগল দেখে ধরতে যাবেন না।
গুগল বর্তমানে বিশ্বজুড়ে চলমান বিভিন্ন ইভেন্ট এবং স্মরণীয় দিন গুলোতে গুগল ডুডল প্রকাশ করে আর গুগলের প্রথম দুটির বার্তা ছিল আউট অফ অফিস। যা 1998 সালের 30 আগস্ট প্রকাশিত হয়।এই ডুডলের পেছনের কাহিনী টিও খুব মজার। সেদিন ল্যারি এবং সের্গেই একটি উৎসবের যোগদানের জন্য নেবাডা গিয়েছিলেন। আর তখনই প্রথম তাদের মাথায় ডুডলের আইডিয়াটি আসে। তারা এমন একটি ডুডল প্রকাশ করে যে, তাদের গুগল ব্যবহারকারীরা বুঝতে পারেন যে তারা অফিসের বাইরে আছেন এবং সার্ভার ক্রাশ এর মত প্রযুক্তিগত সমস্যাগুলি তারা এই মুহূর্তে ঠিক করতে পারবেন না। আর এরপর থেকে ডুডল গুগলের একটি ঐতিহ্য পরিণত হয়।

গুগল যখন ব্যাকরাব নামে পরিচিত এটি তখনকার ঘটনা। গুগলের প্রথম স্টোরেজটি এখনো স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি তে প্রদর্শিত হয়। তবে আপনি জেনে অবাক হতে পারেন যে গুগলের প্রতিষ্ঠা করা প্রথম স্টোরেজ তৈরি করা হয়েছিল লেগো দিয়ে। এতে স্টোরেজ ছিল প্রায় 40 জিবি।যা বর্তমান সময়ে কিছুই নয়। এই 40 জিবি তৈরি করা হয়েছিল ১০টি 4 জিবি স্টোরেজ কানেক্ট করে।
গুগলের প্রথম টুইটটি ছিল খুবই মজার এবং উদ্ভাবনী। 2009 সালের ফেব্রুয়ারি মাসের 26 তারিখ সকাল ছয়টা 4 মিনিটে এইটুইটি করা হয়।টুইটটি ছিল এরকম-

গুগলের প্রথম টুইট

আপনারাই পড়ে নিন কিন্তু এটা কি? দেখে মনে হচ্ছে বাইনারি নাম্বার। ঠিক না? হ্যাঁ, এটি আসলে একটি বাইনারি নাম্বার। তবে এটি যেসে বাইনারি নাম্বার নয়। এটি গুগলের একটি বিখ্যাত লাইন এর বাইনারি নাম্বার। আর যা হল, I'm feeling lucky.

I'm feeling Lucy

এমনি জানা অজানা তথ্য জানতে আপনার আমার ওয়েব সাইট clickoffice.club এর সাথেই থাকুন। এবং পোস্টটি ভাল লাগলে বন্দুদের মাঝে শেয়ার করতে ভূলবেন না।ধন্যবাদ।

Thank You.

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন