কনডম আবিস্কারের অজানা তথ্য ও কিছু ইন্টারেস্টিং ফেক্ট


কনডম আবিস্কারের অজানা তথ্য

 আবিস্কার ও কিছু অজানা তথ্য

বন্ধুরা আপনারা কি জানেন? তিব্বতের উপর দিয়ে কেন কোন প্লেন পারে না উড়তে? অথবা ফাঁসি দেওয়ার সময় জল্লাদ কয়েদির কানে কানে কি বলে থাকে? আর আপনি কি এটা জানেন কিভাবে গোপন কাজের হেলমেট আবিষ্কার হয়েছিল? হ্যাঁ বন্ধুরা আজকের পোস্টটে  জানতে চলেছেন এমন কিছু মজার এবং ইন্টারেস্টিং ফ্যাক্ট সম্পর্কে। তাই অজানা তথ্য জানতে হলে পোস্টটি  শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন।

নাম্বার-১

কোহিনূর ডায়মন্ড এটি বর্তমানে রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের মূর্তি কে অনেক বেশি সৌন্দর্যমন্ডিত করে তুলেছে। কিন্তু আপনারা জানলে অবাক হবেন এই কোহিনুর হীরা টি সর্বপ্রথমে ভারতবর্ষে ছিল। এমনকি সময়ের সাথে সাথে এই হীরাটির মালিক অনেকবার চেঞ্জ হয়েছে। ভারতের তৎকালীন রাজা মহারাজা এবং সম্রাটদের মধ্যে যেমন কি নাদির শাহ, সুজা রঞ্জিত সিং সহ অনেক রাজা মহারাজা এবং সম্রাটদের মাথার মুকুট এর মধ্যে এই কোহিনুর হীরা টি স্থান পেত। কিন্তু পরবর্তীতে যখন সিকদের সং সন্দীপ হয়ে যায় তখন তারা কোহিনুর হীরা টি ইংরেজদেরকে দিয়ে দেয় আর এই কারণে মূল্যবান হীরা টি ভারত বর্ষ থেকে হাতছাড়া হয়ে যায়। এর পরেই হীরাটি মহারানী ভিক্টোরিয়া মাথার মুকুট এর মধ্যে স্থান পায় আর বর্তমানে এই হীরাটি স্থান পেয়েছে রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের মাথার মুকুট এর মধ্যে।

নাম্বার -২

 বন্ধুরা আমরা সবাই জানি আমরা যখন কান্না করি তখন আমাদের চোখ বেয়ে টপটপ করে পানি পড়তে থাকে। কিন্তু আপনারা কি কখনও চিন্তা করেছেন? ছোট ছোট বাচ্চারা এত বেশি কান্না করার পরেও তাদের চোখ দিয়ে কখনো পানি পড়ে না। কেন? আসলে কোন শিশু যখন জন্মগ্রহণ করে জন্মের পর দুই থেকে তিন সপ্তাহ পর্যন্ত তারা যদি অঝোর ধারায় কান্না কাটি করে তারপরও তাদের চোখ দিয়ে পানি পড়ে না। আর এর কারণ হচ্ছে বাচ্চারা যখন জন্মগ্রহণ করে তখন তাদের অশ্রুগ্রন্থি ভালো ভাবে বিকশিত হতে পারে না। আর এই কারণে শিশুরা জন্মগ্রহণ করার পরে দুই থেকে তিন সপ্তাহ পর্যন্ত যত বেশি কান্না করুক না কেন তাদের চোখ দিয়ে পানি পড়তে দেখা যায় না।

নাম্বার -৩

 বন্ধুরা আপনি কি কখনো চিন্তা করেছেন কি কারনে তিব্বতের উপর দিয়ে কখনো প্লেইন উঠতে পারে না। আসলে বন্ধুরা তিব্বত হচ্ছে বিশাল বিশাল উঁচু পাহাড় পর্বতে ঘেরা একটি দেশ।এমনকি তিব্বতের বেশিরভাগ পাহাড় পর্বতের উচ্চতা 6 হাজার মিটার এর ও বেশি হয়ে থাকে অন্যদিকে তিব্বতের এভারেস্ট মাকালু এবং কাঞ্চনজঙ্ঘা পর্বত এর উচ্চতা প্রায় 8 হাজার মিটার এর ও বেশী হয়ে থাকে। কিন্তু কমার্শিয়াল প্লেনগুলো এক দেশ থেকে আরেক দেশে যাওয়ার সময় সাধারণত 8 হাজার মিটার উপর দিয়ে চলাচল করে কিন্তু তিব্বতে এমনও পাহাড় পর্বত রয়েছে যেগুলো 8000 মিটারেরও উপরে পৌঁছে গিয়েছে। তাই প্লেনের জন্য বলা চলে এগুলো আকাশের মধ্যে দেওয়াল হয়ে দাঁড়িয়ে থাকে। এমনকি তিব্বতের পাহাড় গুলো এমন জায়গায় অবস্থিত যেখানে আমাদের বায়ুমণ্ডলের স্তর আরেক স্তরের সাথে মিলিত হয়েছে। যার কারণে বিমানগুলো যদি বায়ুমন্ডলের কোন স্তরের উপর দিয়ে চলাচল করে তাহলে সেখানে অক্সিজেনের স্বল্পতা দেখা দেয় এবং বিমানের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেওয়া শুরু করে। যার কারণে কমার্শিয়াল বিমানগুলো চাইলেও তিব্বতের উপর দিয়ে যাতায়াত করতে পারে না।

 নাম্বার -৪

বন্ধুরা আপনি কি জানেন? না জানলে জেনে নিন অজানা তথ্য।আমাদের দেশে ফাঁসির আসামিকে যখন ফাঁসি দেওয়ার জন্য কালো কাপড় দিয়ে তার চোখ মুখ ঢেকে দেওয়া হয়। তখন জল্লাদ তার কানে কানে কি বলে থাকে? যদি না জেনে থাকেন তাহলে এখনি জেনে যাবেন আসলে ফাঁসি দেওয়ার সময় ফাঁসির আসামিকে জল্লাদ কালো কাপড় দিয়ে চোখ মুখ ঢেকে দেওয়ার পর ফাঁসির আসামির কানে কানে বলে আমি এটা করতে বাধ্য আমাকে মাফ করে দিও। শুধু তাই নয় যদি ফাঁসির আসামি হিন্দু হয় তাহলে আসামির কানে কানে বলা হয় রাম রাম আর ফাঁসির আসামী যদি মুসলমান হয় তাহলে ফাঁসির আসামির কানে কানে আখেরি সালাম দিয়ে তার ফাঁসি কার্যকর করা হয়।

 নাম্বার -৬

 বন্ধুরা আপনারা কি জানেন? গোপন কাজের হেলমেট আইমিন গোপন কাজের বেলুন /কনডম কিভাবে আবিষ্কার হয়েছিল? আসলে বন্ধুরা এই কনডম আবিষ্কার মূলত যৌন রোগ ঠেকানোর জন্য হয়েছিল। প্রাচীন কালেও ব্যবহার করা হতো। তবে তারা একেক সময়ে একেক জিনিস দিয়ে এই কাজে ব্যবহার করত। যেমন  কখনো পশুর চামড়া, পশুর খাদ্য নালী,পশুর শিং অথবা কোন ধাতব আস্তরন। এমনকি অনেক সময় বাশের চামড়া দিয়ে বানানো জিনিস দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু ষষ্ঠ শতকে সিফিলিস নামক একটি যৌন রোগ ইউরোপ জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে এবং এই রোগটি মহামারী আকার করে তাই এই রোগ থেকে বাঁচার জন্য একজন চিকিৎসক একটি আবরণ তৈরি করেন। যে জিনিসটা যৌনাঙ্গের মধ্যে লাগিয়ে ফিতা দিয়ে বেঁধে দেওয়া হতো আর এটাই ছিল পৃথিবীর সর্বপ্রথম বানানো যৌন রোগ নিরোধক বেলুন। এরপরে যখন ল্যাটেক্স আবিষ্কার হয়। তখন এই জিনিসটা তেও অনেক পরিবর্তন আসে এবং এরপরে যখন ১৯৮০ সালে এইডস রোগের প্রাদুর্ভাব বেড়ে যায়। সেই সময় এই জিনিসটার ব্যবহার আরো কয়েকগুণ বেশি বেড়ে যায়। আর তখন থেকেই মূলত এই কনডম ব্যবহার পুরোদমে শুরু হয়ে যায়। তো বন্ধুরা আজকের পোস্টটের ফেক্টস গুলোর মধ্যে কোন ফেক্টটি আপনাদের সবচেয়ে বেশি মজা এবং ইন্টারেস্টিং মনে হয়েছে? অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন আর এমনে আনকমন এবং ইন্টারেস্টিং অজানা তথ্য পেতে চাইলে আমাদের clickoffice.club ওয়েব সাইটের সাথেই থাকুন। ধন্যবাদ বন্ধুরা ভালো থাকবেন।

আল্লাহ হাফেজ

*

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন